সোমবার : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১ আশ্বিন ১৪২৬ | ১৬ মুহাররম ১৪৪১ | সকাল ৬:০৫

সেকশন এক

লাগামহীন খেলাপি ঋণ

বি-বার্তা | আগস্ট ২৩, ২০১৯

পুনর্গঠন ও বিশেষ সুবিধায় ঋণ পুনঃতফসিলের পরও খেলাপি ঋণের লাগাম টানা যাচ্ছে না। অব্যাহতভাবে বেড়েই চলেছে ব্যাংকিং খাতের খেলাপি ঋণ। বাংলাদেশ ব্যাংক এবং তফসিলি ব্যাংকগুলো নানাবিধ পদক্ষেপের কথা বললেও কার্যত কোনো ফলাফল মিলছে না। পাহাড়সম খেলাপিতে ন্যুব্জ হয়ে পড়েছে ব্যাংকগুলো। চলতি বছরের জুন মাস শেষে ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে এক লাখ ১২ হাজার ৪২৫ কোটি টাকা। যা মোট বিতরণকৃত ঋণের ১১ দশমিক ৬৯ শতাংশ। এর সঙ্গে অবলোপন করা ঋণের পরিমাণ যোগ করলে প্রকৃত খেলাপি ঋণ দাঁড়াবে ১ লাখ ৫০ হাজার ৯৭৪ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। জানা গেছে, দেশে পর্যাপ্ত বিনিয়োগ না থাকায় ব্যবসা-বাণিজ্যে গতি ফিরছে না। এমন পরিস্থিতিতে একদিকে যেমন ব্যাংকের ঋণ বিতরণ বাড়ছে না, অন্যদিকে আগে বিতরণ হওয়া ঋণের টাকাও ফেরত পাচ্ছে না ব্যাংকগুলো। এতে করে ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ বেড়েই চলছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত নিয়মিত ঋণগুলো আবার খেলাপি হতে শুরু করায় খেলাপি ঋণ বাড়ছে। সূত্র মতে, রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী ও শিল্পোদ্যোক্তাদের বিশেষ সুবিধা দিতে ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণ পুনঃতফসিল ও পুনর্গঠনে (নিয়মিত) বিশেষ ছাড় দেয়া হয়। ২০১৩ সালের জুলাই থেকে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে এ সুযোগ নেন দেশের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে বড় শিল্প গ্রæপের উদ্যোক্তারা। এর আওতায় বাংলাদেশ ব্যাংকের অনাপত্তিসাপেক্ষে প্রায় ৪৯ হাজার কোটি টাকার খেলাপি ঋণ নিয়মিত করা হয়েছে। এর বাইরে বিদ্যমান নীতিমালার আওতায় ব্যাংকগুলো নিজেরা আরো ৬৪ হাজার ৮৬২ কোটি টাকার ঋণ নিয়মিত করেছে। এখন পর্যন্ত পুনঃতফসিল সুবিধা অব্যাহত রয়েছে। তার পরও এ খাতে খেলাপি ঋণ না কমে উল্টো বেড়েছে। তবে প্রতি প্রান্তিকে হাজার হাজার কোটি টাকার খেলাপি ঋণ বৃদ্ধিকে এ খাতের জন্য অত্যন্ত ঝুঁকি হিসেবে দেখছেন অর্থনীতিবিদরা। তারা বলছেন, বাছবিচার ছাড়া ঋণ অনুমোদন, ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার সর্বোত্তম পরিপালন না করা এবং ঋণ আদায় কার্যক্রম জোরদার না করার কারণেই খেলাপি ঋণ বাড়ছে। এতে ব্যাংকের তহবিল ব্যয় বেড়ে যাচ্ছে। কারণ খেলাপি ঋণের বিপরীতে ব্যাংকগুলোকে প্রয়োজনীয় প্রভিশন সংরক্ষণ করতে হচ্ছে। অন্যদিকে, তহবিল ব্যয় বাড়ায় ঋণের সুদও প্রত্যাশিত হারে কমছে না। এতে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে ব্যবসা-বাণিজ্য।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর সালেহউদ্দিন আহমেদ বলেন, খেলাপি ঋণ বেশি হলে ব্যাংকের ঋণ দেয়ার ক্ষমতা কমে যায়। ফলে সুদের হারও বাড়ে। বর্তমানে গ্রাহকদের আমানতের সুদের হার কমিয়ে এসব সমন্বয় করছে ব্যাংকগুলো। ফলে আমানতকারীরা নিরুৎসাহিত হয়ে পড়ছেন। তিনি আরো বলেন, খেলাপিদের বিভিন্ন সুবিধা দেয়ার ফলে ভালো গ্রাহকদের কাছে খারাপ সংকেত যাচ্ছে। আর অবলোপন করা হচ্ছে জনগণের আমানতের অর্থ দিয়ে। এর প্রভাব পড়েছে গ্রাহকদের ওপর।
একই বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমরা বাংলাদেশ ব্যাংক যত পদক্ষেপই নেই না কেন তা সরাসরি খেলাপি ঋণ কমিয়ে আনবে না। ব্যাংকগুলোকে নিজেদের উদ্যোগ ও কার্যকর পদক্ষেপ থাকতে হবে। ব্যাংকের পর্ষদ ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে ঋণ বিতরণের সময় মান যাচাই করতে হবে। তাহলেই কমে আসবে খেলাপি ঋণ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, চলতি বছরের জুন শেষে দেশের ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণ বেড়ে হয়েছে ১ লাখ ১২ হাজার ৪২৫ কোটি টাকা। যা মোট বিতরণকৃত ঋণের ১১ দশমিক ৬৯ শতাংশ। এর আগে মার্চ প্রান্তিকে থেলাপি ঋণের এই পরিমাণ ছিল এক লাখ ১০ হাজার ৮৭৩ কোটি টাকা, যা বিতরণকৃত ঋণের ১১ দশমিক ৮৭ শতাংশ। ফলে চলতি বছরের মার্চ থেকে জুন এই তিন মাসে খেলাপি ঋণের হার কমলেও খেলাপি ঋণের পরিমাণ বেড়েছে এক হাজার ৫৫১ কোটি টাকা। আর গত বছরের জুনে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ছিল ৮৯ হাজার ৩৪০ কোটি টাকা। সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে খেলাপি ঋণ বেড়েছে ২৩ হাজার ৮৫ কোটি টাকা। এর বাইরে গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত অবলোপনের মাধ্যমে ব্যাংকের হিসাবের খাতা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে নিট ৪০ হাজার ১০১ কোটি টাকা। এ ঋণ যোগ করলে দেশের ব্যাংকিং খাতের খেলাপি ঋণের প্রকৃত পরিমাণ দাঁড়াবে ১ লাখ ৫০ হাজার ৯৭৪ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, প্রতিবছর ধারাবাহিকভাবে কুঋণের পরিমাণ বাড়লেও এক লাখ কোটি টাকার উপরে কখনও যায়নি। চলতি বছরের মার্চ শেষে প্রথমবারের মতো খেলাপি ঋণ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায়।

প্রতিবেদন বিশ্লেষণে দেখা যায়, দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত মোট ঋণের স্থিতি দাঁড়িয়েছে ৮ লাখ ৭১ হাজার ৭০৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে খেলাপি হয়ে পড়েছে ১ লাখ ১২ হাজার ৪২৫ কোটি টাকা, যা মোট বিতরণকৃত ঋণের ১১ দশমিক ৬৯ শতাংশ। এর আগে মার্চ প্রান্তিকে মোট বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ছিল ৯ লাখ ৩৩ হাজার ৭২৭ কোটি টাকা। এর মধ্যে খেলাপি হয়েছিল ১ লাখ ১০ হাজার ৮৭৩ কোটি টাকা, যা মোট বিতরণকৃত ঋণের ১১ দশমিক ৮৭ শতাংশ। অর্থাৎ এপ্রিল থেকে জুন এই তিন মাসে মোট বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ কমলেও বেড়েছে খেলাপি ঋণের পরিমাণ। ফলে শতাংশের হিসাবে খেলাপি ঋণ কিছুটা কম মনে হলেও প্রকৃত হিসাবে তা বেড়েছে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, জুন শেষে রাষ্ট্রায়ত্ত ছয় ব্যাংকের মোট খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫৩ হাজার ৭৪৪ কোটি টাকা; যা ব্যাংকগুলোর মোট বিতরণ করা ঋণের ৩১ দশমিক ৫৮ শতাংশ। বিশেষায়িত খাতের দুই ব্যাংকের খেলাপি হয়েছে ৪ হাজার ৪৯৬ কোটি টাকা; যা ব্যাংকগুলোর বিতরণ করা ঋণের ১৭ দশমিক ৮২ শতাংশ। বেসরকারি খাতের ৪২টি ব্যাংকের খেলাপি হয়েছে ৫১ হাজার ৯২৪ কোটি টাকা; যা ব্যাংকগুলোর মোট বিতরণ করা ঋণের ৭ দশমিক ১৩ শতাংশ। এছাড়া বিদেশি খাতের ৯টি ব্যাংকের খেলাপি হয়েছে ২ হাজার ৫৭ কোটি টাকা; যা ব্যাংকগুলোর মোট বিতরণ করা ঋণের ৫ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

এদিকে আহম মুস্তফা কামাল অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়ার পরই খেলাপি ঋণ আর এক টাকাও বাড়বে না বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন। কিন্তু তার এমন ঘোষণার পরই গত মার্চ প্রান্তিকে খেলাপি ঋণের নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। সম্প্রতি খেলাপি ঋণ এবং ঋণের সুদহার কমাতে বাংলাদেশ ব্যাংকে তফসিলি ব্যাংকগুলোর সঙ্গে বৈঠক করেন অর্থমন্ত্রী। এই বৈঠকেও তিনি বলেছিলেন যে, জুন প্রান্তিকে খেলাপি ঋণ কমে আসবে।

Please follow and like us:







পুরনো সংখ্যা

আগষ্ট ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুলাই    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  










তথ্য প্রযুক্তি

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ফেসবুকের গ্রুপ চ্যাট

বি-বার্তা | আগস্ট ২৩, ২০১৯

কাজের প্রয়োজনে কিংবা আড্ডায় ফেসবুক গ্রুপ চ্যাটের জুড়ি নেই। প্রাইভেসির কথা চিন্তায় এনে এবার ম্যাসেঞ্জারে ফেসবুক গ্রুপ থেকে তৈরি করা গ্রুপ চ্যাট সেবা বন্ধ করছে ফেসবুক। যা আগামী বৃস্পতিবার (২২ আগস্ট) থেকে কার্যকর হবে। তবে গ্রুপ চ্যাট বন্ধ হলেও পূর্বের চ্যাটগুলো দেখা যাবে। শনিবার সকাল থেকেই ব্যবহারকারীদের ম্যাসেঞ্জারে এ সংক্রান্ত নটিফিকেশন দিয়েছে ফেসবুক। কমিউনিটি লিডারশিপ […]

নারী শিশু

নারীদের জন্য মেডিটেশন ভীষণ জরুরি

বি-বার্তা | আগস্ট ২৩, ২০১৯

আমাদের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে নারীরা পুরুষের তুলনায় এখনো অনেক পিছিয়ে আছেন। অর্থনীতি, শিক্ষা, প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে নারীরা এখনো সারা পৃথিবীতে বিশেষত বাংলাদেশে পুরুষের সমমর্যাদায় পৌঁছাতে পারেননি। শহর এলাকাগুলোতে নারীরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে বড় ডিগ্রি নিচ্ছেন, লেখাপড়া শেষে নিজের কর্মসংস্থানে যুক্ত হচ্ছেন। শহর এলাকাগুলোতে এই পরিসংখ্যান নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। কিন্তু গ্রামাঞ্চলে বা শহরেও অনেক নারী এখনো পিছিয়ে আছেন। প্রতিষ্ঠা, […]

ফিচার

সংস্কারের অভাবে চলাচলের অযোগ্য লিংক রোড

বি-বার্তা | আগস্ট ২৭, ২০১৯

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের অবস্থা দিন দিন খারাপ হচ্ছে। কোথাও উঁচু-নিচু। পিচ উঠে গেছে জায়গায় জায়গায়। সড়কের মাঝ বরাবর পিচের উচুঁ ঢিবি তৈরী হয়েছে। কোথও কোথাও পানি জমে পিচসহ খোয়া উঠে গেছে। গর্তগুলো দিনের ব্যবধানে বড় হচ্ছে। এসব সংস্কারে এসে দায়সারা কাজ করছে সড়ক বিভাগ। ছোট ছোট কিছু গর্তে ইট ফেলে সংস্কার শেষ করছে। বড় সমস্যাগুলো […]

স্বাস্থ্য

৩শ’ শয্যায় ঠাই হচ্ছেনা রোগীর যাচ্ছে ঢাকায়

বি-বার্তা | আগস্ট ২৯, ২০১৯

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা যখন কমে আসছে তখনই আবার নতুন করে বৃদ্ধি পেয়েছে শিশু রোগীর সংখ্যা। তবে সেটা ডেঙ্গু নয় ঠান্ডা, জ্বর, নিমোনিয়া সহ অন্যান্য রোগে আক্রান্ত। আর হঠাৎ করে রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় হিমশিম খেতে হচ্ছে ৩০০ শয্যা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকা সহ অনেক শিশুকে ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে। তবে কর্তৃপক্ষের দাবি […]

নামাজের সময়

    ঢাকা, বাংলাদেশ
    সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ৪:২৯ পূর্বাহ্ণ
    সূর্যোদয়ভোর ৫:৪৫ পূর্বাহ্ণ
    যোহরদুপুর ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ
    আছরবিকাল ৩:২০ অপরাহ্ণ
    মাগরিবসন্ধ্যা ৬:০২ অপরাহ্ণ
    এশা রাত ৭:১৭ অপরাহ্ণ

সাহিত্য

রাখালরাজার কবরে লক্ষ চোখের পানি

বি-বার্তা | আগস্ট ১৭, ২০১৯

“ ইকরি মিকরি চামচিকরি / কাতুর কুতুর ছা, টুঙ্গিপাড়া শেখেরবাড়ি / উইড়া সেথায় যা । সেইখানেতে রাখালরাজার / ছোট্ট কবর খানি সকাল বিকাল ঝরায় কেবল/ লক্ষ চোখের পানি।” ১৫ আগস্ট এলেই মনে পড়ে যায় প্রখ্যাত শিশু সাহিত্যিক খালেক-বিন-জয়েনউদ্দিন এর লেখা প্রাণস্পর্শী এই ছড়াটির কথা। অত্যন্ত আবেগ দিয়ে লেখা ছড়ার প্রথম চারটি লাইন পড়লেই বাংলার রাখালরাজা […]

সম্পাদকীয়

উদ্বেগ উৎকণ্ঠা আর শঙ্কায় নগরবাসী

বি-বার্তা | এপ্রিল ০৫, ২০১৯

ঝড় আসার পূর্বাভাসগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে গুমোট আবহাওয়া। এরপরই ঝড়ের কড়াল থাবা তছনছ করে দিয়ে যায় তিলোত্তমা। তেনই একটি গুমোট গুমোট ভাব এখন নারায়ণগঞ্জ নগরীর সর্বত্র। অনেকেই বলছেন, খুব খারাপ কিছু হয়তো অপেক্ষা করছে শহর ও শহরতলীবাসীর জন্য। গত কদিন ধরেই শহরের চারদিকে কেমন যেন এক অস্থিরতা সবার মঝে। শঙ্কা আর কৌতুহল নিয়েই চলছে […]